protidiner sangbad

ঢাকায় আরো একটি সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক হচ্ছে

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরিতে ঢাকায় আরো একটি সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক স্থাপনের পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। এ প্রকল্পে জনতা টাওয়ার সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের পাশে এই পার্ক স্থাপন করা হবে। সেখানে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, বিগ ডেটা অ্যানালাইটিকস, ব্লকচেইন, রোবটিকসÑ এসব বিষয়ে গবেষণা হবে। গতকাল শুক্রবার আইইবি সদর দপ্তরে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন ঢাকা কেন্দ্র ও বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের যৌথ উদ্যোগে তিন দিনের মেন্টর ডেভেলপমেন্ট ক্যাম্প ‘ইউনিবেটর’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা জানান তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

পলক বলেন, “আমরা নতুন একটি প্রকল্প নিয়েছি ‘প্রাইভেট ইন্ডাস্ট্রি ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট’; যেটা প্রাইম নামে অল্প দিনের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থাপন করতে পারব। বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘সেন্টার ফর ফোর্থ ইন্ডাস্ট্রি রেভলিউশন’ স্থাপন করা হবে, যেখানে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, বিগ ডেটা অ্যানালাইটিকস, ব্লকচেইন, রোবটিকস এসব বিষয়ে গবেষণা হবে।’

২০৪১ সালের মধ্যে ভবিষ্যৎ প্রযুক্তিতে ‘নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য’ দক্ষ জনশক্তি তৈরির নানা উদ্যোগের কথা জানিয়ে পলক বলেন, পদ্মা সেতু পার হয়ে (মাদারীপুরের শিবচরে) হাতের ডানে ৭০ একর জায়গায় শেখ হাসিনা ইনস্টিটিউট অব ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজি (সিফট) স্থাপন করা হবে। অর্থাৎ পুরো বিশ্বের যে প্যারাডাইমে শিফট হতে যাচ্ছে, তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে নেতৃত্ব দিতে এ ইনস্টিটিউট তৈরি করতে উদ্যেগ গ্রহণ করা হয়েছে। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে অনেক কিছুই নতুন হচ্ছে, আবার বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে, সেজন্য নতুন যুগের সঙ্গে তাল মেলাতে হবে। নতুন পরিবর্তনের সঙ্গে খাপখাইয়ে চলতে না পারলে টিকে থাকা কঠিন হবে। হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ ৩৯টি হাইটেক পার্ক তৈরির প্রকল্প হাতে নিয়েছে, যার পাঁচটির কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর, প্রকৌশলীদের শীর্ষ সংগঠন ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন (আইইবি) প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী নুরুল হুদা, হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা আইইবির ঢাকা কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মোল্লা মোহাম্মদ আবুল হোসেন অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন। সূত্র: প্রতিদিনের সংবাদ।

DBCNEWS-1

পদ্মা সেতুর পাশেই হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর নামে হাইটেক পার্ক

ব্লক চেইন ও রোবটিক্সসহ অন্যান্য প্রযুক্তিখাতে দক্ষ জনবল তৈরি করতে পদ্মা সেতুর পাশে ‘শেখ হাসিনা ইনস্টিটিউট অব ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজি অ্যান্ড হাইটেক পার্ক’ নামে একটি ইনস্টিটিউট গড়ে তোলা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

শুক্রবার (২৯ জানুয়ারি) বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ ও আইইবি’র উদ্যোগে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে একথা জানান তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতু এক্সপ্রেস হাইওয়ের পাশে মাদারীপুরের শিবচরে ৭০ একর জায়গায় এই ইনস্টিটিউট গড়ে তোলা হচ্ছে। এরপাশাপাশি দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে ৬৪টি জেলায় স্থাপন করা হচ্ছে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং ইনকিউবিশন সেন্টার। যারমধ্যে চলতি বছরে শেষ হবে ৮টির কাজ। এসব ট্রেনিং সেন্টারের মাধ্যমে ২০৪১ সাল নাগাদ ১০ লাখ তরুণ-তরুণীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। এরমধ্যে কর্মসংস্থানের সুযোগ দেওয়া হবে অন্তত ৫ লাখ প্রশিক্ষণার্থীকে।

এসময় কর্মমুখী শিক্ষার ওপর গুরুত্বারোপ করে পলক আরো বলেন, প্রযুক্তি শিক্ষায় শিক্ষিত হলে তরুণদের চাকরির পেছনে ছুটতে হবে না। ঘরে বসেই ফ্রিল্যান্সিং করেই অনেক অর্থ আয় করতে পারবেন।

ফ্রিলান্সিংয়ের সম্ভাবনা তুলে ধরে প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে সাড়ে ছয় লাখ ফ্রিল্যান্সার রয়েছে। করোনায় ঘরে বসেই অনলাইন প্ল্যাটফর্মে অস্ট্রেলিয়া ও চীনের পণ্য ইউরোপ আমেরিকায় বিক্রি করে দিচ্ছে বাংলাদেশিরা তরুণরা। ২০২৫ সাল নাগাদ পাঁচ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে সরকার। সে লক্ষ্যে দেশে ৩৯টি আইটি ও হাইটেক পার্ক গড়ে তোলা হচ্ছে। এরমধ্যে ৫টি হাইটেক পার্কের নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে।

এসময় তরুণদের নতুন নতুন উদ্ভাবনের দিকে মনোযোগ দেয়ার পরামর্শ দেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী। বলেন, ২০-২৫ বছর আগে ফেসবুক, গুগলের মতো প্ল্যাটফর্মগুলো স্টার্টআপ ছিল। কিন্তু এখন তারা বিলিয়ন ডলারের প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। সুতরাং হতাশ না হয়ে উদ্ভাবনের পেছনে লেগে থাকতে তরুণ প্রযুক্তিবিদদের তাগিদ দেন তিনি। অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম ও  বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কতৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম’সহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন। সূত্র: সময় নিউজ ।

DBCNEWS-1

Govt plans to develop another software technology park in Dhaka

State Minister for ICT Zunaid Ahmed Palak has said the government plans to develop a second software technology park in Dhaka to create skilled IT professionals.

The announcement came at the opening of a three-day mentor development camp, organised by the Institution of Engineers, Bangladesh and Bangladesh Hi-Tech Park Authority, at the IEB building on Friday, reports bdnews24.com.

The new initiative styled ‘Prime’, a private industry development project, will be presented before Prime Minister Sheikh Hasina soon, said Palak.

The Software Technology Park at Janata Tower in Dhaka will have another next to it under the project, he said.

The government will also establish a centre for the Fourth Industrial Revolution at the universities to conduct researches on artificial intelligence, big data analytics, blockchain technologies and robotics, according to the state minister.

Bangladesh Hi-Tech Park Authority has undertaken 39 projects to construct as many hi-tech parks in Bangladesh and five of them are complete. Source: The Financial Express.

BDNews24.com

Bangladesh to build another software technology park in Dhaka

The government plans to develop a second software technology park in Dhaka to create skilled IT professionals, State Minister for ICT Zunaid Ahmed Palak has said.

The announcement came at the opening of a three-day mentor development camp, organised by the Institution of Engineers, Bangladesh and Bangladesh Hi-Tech Park Authority, at the IEB building on Friday.

The new initiative styled ‘Prime’, a private industry development project, will be presented before Prime Minister Sheikh Hasina soon, said Palak.

The Software Technology Park at Janata Tower in Dhaka will have another next to it under the project, he said.

The government will also establish a centre for the Fourth Industrial Revolution at the universities to conduct researches on artificial intelligence, big data analytics, blockchain technologies and robotics, according to the state minister.

Bangladesh Hi-Tech Park Authority has undertaken 39 projects to construct as many hi-tech parks in Bangladesh and five of them are complete. Source: bdnews24.com.

DBCNEWS-1

একাডেমিয়ার উদ্ভাবনী চিন্তাকে সেবায় রূপান্তর করবে ইউনিবেটর

শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও গবেষকদের থিসিস বা এসাইনমেন্টের উদ্ভাবনী চিন্তা, ধারণা ও সম্ভাবনাকে সেবায় রূপান্তর করতে চায় সরকার। এর জন্য ইউনিভার্সিটি ইনকিউবেটর (ইউনিবেটর) প্রোগ্রামের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

শুক্রবার সকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) সদর দপ্তরে আয়োজিত ইউনিবেটর প্রোগ্রামের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অনলাইনে সংযুক্ত হয়ে এ কথা বলেন তিনি। বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক ও আইইবি যৌথভাবে এর আয়োজন করে।

পলক বলেন, ‘শিক্ষক, শিক্ষার্থী, গ্র্যাজুয়েট কিংবা গবেষকদের থিসিস, ফাইনাল ইয়ার প্রজেক্ট কিংবা এসাইনমেন্টগুলোর সকল উদ্ভাবনী চিন্তা, ধারনা ও সেগুলো ভিত্তিক সম্ভাবনাকে পন্য বা সেবায় রুপান্তরের মাধ্যমে বিজনেস ভেঞ্চারে পরিনত করার জন্যেই ইউনিভার্সিটি ইনকিউবেটর চালু করা হয়েছে।’

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর তথ্য মতে, প্রতি বছর প্রায় ১০ লাখ গ্র্যাজুয়েট বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হতে পাস করে বের হয়। নিয়মানুসারে তাদের প্রত্যেককেই কোনো না কোনো থিসিস, রিসার্চ কিংবা ফাইনাল ইয়ার প্রজেক্ট জমা দিয়ে গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করতে হয়।

শিক্ষক, শিক্ষার্থী, গ্র্যাজুয়েট কিংবা গবেষকদের এই রিপোর্টগুলোতে বেশ কিছু ডিজরাপটিভ প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনী আইডিয়া থাকে। সেগুলো বাস্তব জীবনে পণ্য কিংবা সেবায় রুপান্তর করে সেটার ভিত্তিতে নতুন নতুন বিজনেস ভেঞ্চার তৈরির পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে মেন্টর তৈরির জন্য ইউনিবেটর প্রোগ্রামের উদ্যোগ গ্রহণ করে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্কের আওতাধীন শেখ কামাল আইটি ইনকিউবেশন সেন্টার চুয়েট প্রকল্প এবং ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) এর ঢাকা সেন্টার।

ইউনিবেটর প্রোগ্রামের প্রথম ধাপে ২০টি বাছাইকৃত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মেন্টর হিসেবে গড়ে তোলার জন্য চারদিন ব্যাপী বাংলাদেশের প্রথম মেন্টর ডেভেলপমেন্ট ক্যাম্প আয়োজন, দেশ সেরা ১০টি একাডেমিক প্রজেক্ট বাছাই এর প্রতিযোগিতা এবং সেই ১০টি প্রজেক্টকে মাস ব্যাপী ইনকিউবেশনের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক মানের স্টার্টআপ হিসেবে বাজারে আনার পরিকল্পনা করা হয়েছে। সেরা ১০টি প্রকল্পকে বিনামূল্যে এক মাসের ইনকিউবেশন, স্টার্টআপ লঞ্চিং প্রোগ্রামসহ যাবতীয় ট্রেনিং এবং মেন্টরিং সুবিধা দেয়া হবে এই প্ল্যাটফর্ম থেকে। এ ছাড়াও বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক স্থাপিত শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং ও বিজনেস ইনকিউবেটর ও সফটওয়ার টেকনোলজি পার্কের মত স্থাপনাগুলোতে ১ বছরের জন্য বিজনেস স্পেস প্রদান করার পাশাপাশি ইনোভেশন ডিজাইন এন্ড অন্ট্রাপ্রেনরশীপ একাডেমী (আইডিয়া) প্রকল্প এবং স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেড হতে ১০ লক্ষ টাকার অনুদানসহ ইক্যুইটি ফান্ডিং এর জন্যও সুযোগ প্রদান করা হবে।

ইউনিবেটরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম পিএএ এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এবং আইইবি’র প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম এনডিসি (সচিব), ইউজিসি সদস্য অধ্যাপক ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন, আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মোল্লা মোহাম্মদ আবুল হোসেন, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরিচালক(প্রশাসন ও অর্থ) এ এন এম সফিকুল ইসলাম (যুগ্ম সচিব)।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন চুয়েটের শেখ কামাল আইটি বিজনেস ইনকিউবেটরের প্রকল্প পরিচালক এবং বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরিচালক (টেকনিক্যাল) সৈয়দ জাহুরুল ইসলাম, আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের সম্পাদক প্রকৌশলী কাজী খায়রুল বাশার, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরামর্শক(স্টার্টআপ পলিসি ও ইনকিউবেশন স্ট্র্যাটেজি) আশিকুর রহমান রুপম, সহকারী সাধারণ সম্পাদক (একাডেমিক ও আন্তর্জাতিক) প্রকৌশলী মো. রনক আহসানসহ দেশের ২০টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নির্বাচিত ২০জন শিক্ষক ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন। সূত্র: ঢাকা টাইমস ।

Computer Bichitra

অ্যাকাডেমিয়ার উদ্ভাবনী চিন্তাগুলোকে বাস্তবে রূপ দেবে ইউনিবেটর: পলক

বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ ও আইইবি-এর যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হলো ‘ইউনিবেটর’ প্রোগ্রাম। শুক্রবার (২৯ জানুয়ারি) রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশের (আইইবি) সদর দফতরে ইউনিবেটর প্রোগ্রামের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অনলাইনে সংযুক্ত ছিলেন আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

অনুষ্ঠানে পলক বলেন, ‘শিক্ষক-শিক্ষার্থী, গ্র্যাজুয়েট কিংবা গবেষকদের থিসিস, ফাইনাল ইয়ার প্রজেক্ট কিংবা অ্যাসাইনমেন্টগুলোর সব উদ্ভাবনী চিন্তা এবং সেগুলোকে পণ্য বা সেবায় রূপান্তরের মাধ্যমে বিজনেস ভেঞ্চারে পরিণত করার জন্যই ইউনিভার্সিটি ইনকিউবেটর তথা সংক্ষেপে ইউনিবেটর প্রোগ্রামের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।’

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ইউনিবেটর প্রোগ্রামের প্রথম ধাপে ২০টি বাছাই করা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মেন্টর হিসেবে গড়ে তোলার জন্য চার দিনব্যাপী বাংলাদেশের প্রথম মেন্টর ডেভেলপমেন্ট ক্যাম্প আয়োজন করা হবে। দেশ সেরা ১০টি অ্যাকাডেমিক প্রজেক্ট বাছাইয়ের প্রতিযোগিতা করা হবে এবং সেই ১০টি প্রজেক্টকে মাসব্যাপী ইনকিউবেশনের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক মানের স্টার্টআপ হিসেবে বাজারে আনার পরিকল্পনা করা হয়েছে। সেরা ১০টি প্রকল্পকে বিনামূল্যে এক মাসের ইনকিউবেশন, স্টার্টআপ লঞ্চিং প্রোগ্রামসহ যাবতীয় ট্রেনিং এবং মেন্টরিং সুবিধা দেওয়া হবে এই প্ল্যাটফর্ম থেকে। এছাড়া সারাদেশের শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টার ও সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের মতো স্থাপনাগুলোতে এক বছরের জন্য বিজনেস স্পেস প্রদান করার পাশাপাশি ইনোভেশন ডিজাইন অ্যান্ড অন্ট্রাপ্রেনরশিপ অ্যাকাডেমি (আইডিয়া) প্রকল্প এবং স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেড থেকে ১০ লাখ টাকার অনুদানসহ ইক্যুইটি ফান্ডিংয়ের জন্য সুযোগ দেওয়া হবে।

ইউনিবেটরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এবং আইইবি-এর সাবেক প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম প্রমুখ।

এছাড়া সারাদেশের বাছাই করা ২০টি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মেন্টর হিসেবে নির্বাচিত ২০ জন শিক্ষক ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে যুক্ত ছিলেন। সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন ।

DBCNEWS-1

Another software technology park in Dhaka on the cards

Centres for Fourth Industrial Revolution to be established at universities to conduct research on topics like artificial intelligence, says Palak

In a bid to create skilled IT professionals, the Bangladesh government plans to build another software technology park in the capital, State Minister for ICT Zunaid Ahmed Palak said on Friday. 

The state minister was speaking at the inauguration program of a three-day-long mentor development camp organized by The Institution of Engineers, Bangladesh (IEB) and Bangladesh Hi-Tech Park Authority at the IEB building, according to media reports. 

Palak said the new enterprise, “Prime”, will be demonstrated before Prime Minister Sheikh Hasina shortly.

Under the project, the Software Technology Park at Janata Tower in the capital will have another one next to it, the state minister added.

Centres for the Fourth Industrial Revolution will be established at universities for conducting research on big data analytics, artificial intelligence, robotics and blockchain technologies, he said. 

Thirty-nine projects have been undertaken by Bangladesh Hi-Tech Park Authority to construct as many hi-tech parks in the country. It has already completed five of them. Source: Dhaka Tribune.

Computer Bichitra

ইউনিবেটর প্রোগ্রামের উদ্বোধন

বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ এবং ইঞ্জিনিয়ারস ইনস্টিটিউশন অব বাংলাদেশের (আইইবি) যৌথ উদ্যোগে আজ  বৃহস্পতিবার (২৯ জানুয়ারি) অনুষ্ঠিত হলো ‘ইউনিবেটর’ প্রোগ্রাম। আইইবির সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত ইউনিবেটর প্রোগ্রামের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অনলাইনে সংযুক্ত ছিলেন প্রধান অতিথি আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর তথ্য মতে প্রতি বছর প্রায় ১০ লক্ষ গ্র্যাজুয়েট বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হতে পাস করে বের হয়। নিয়মানুসারে তাদের প্রত্যেককেই কোনো না কোনো থিসিস, রিসার্চ কিংবা ফাইনাল ইয়ার প্রজেক্ট জমা দিয়ে গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করতে হয়। শিক্ষক, শিক্ষার্থী, গ্র্যাজুয়েট কিংবা গবেষকদের এই রিপোর্টগুলোতে বেশ কিছু ডিজরাপটিভ প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনী আইডিয়া থাকে। সেগুলো বাস্তব জীবনে পণ্য কিংবা সেবায় রুপান্তর করে সেটার ভিত্তিতে নতুন নতুন বিজনেস ভেঞ্চার তৈরির পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে মেন্টর তৈরির জন্য ইউনিবেটর প্রোগ্রামের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের আওতাধীন শেখ কামাল আইটি ইনকিউবেশন সেন্টার চুয়েট প্রকল্প এবং আইইবির ঢাকা সেন্টার।

ইউনিবেটরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, ইউজিসি সদস্য অধ্যাপক ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন, আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মোল্লা মোহাম্মদ আবুল হোসেন, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ) এ এন এম সফিকুল ইসলাম। সভাপতিত্ব করেন আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম।

ইউনিবেটর প্রোগ্রামের প্রথম ধাপে ২০টি বাছাইকৃত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মেন্টর হিসেবে গড়ে তোলার জন্য চারদিন ব্যাপী বাংলাদেশের প্রথম মেন্টর ডেভেলপমেন্ট ক্যাম্প আয়োজন, দেশ সেরা ১০টি একাডেমিক প্রজেক্ট বাছাইয়ের প্রতিযোগিতা এবং সেই ১০টি প্রজেক্টকে মাস ব্যাপী ইনকিউবেশনের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক মানের স্টার্টআপ হিসেবে বাজারে আনার পরিকল্পনা করা হয়েছে। সেরা ১০টি প্রকল্পকে বিনা মূল্যে এক মাসের ইনকিউবেশন, স্টার্টআপ লঞ্চিং প্রোগ্রামসহ যাবতীয় ট্রেনিং এবং মেন্টরিং সুবিধা দেয়া হবে এই প্ল্যাটফর্ম থেকে। এ ছাড়াও দেশব্যাপী স্থাপিত শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টার ও সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের মত স্থাপনাগুলোতে এক বছরের জন্য বিজনেস স্পেস প্রদান করার পাশাপাশি ইনোভেশন ডিজাইন অ্যান্ড অন্ট্রাপ্রেনরশিপ একাডেমি (আইডিয়া) প্রকল্প এবং স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেড হতে ১০ লক্ষ টাকার অনুদানসহ ইক্যুইটি ফান্ডিং এর জন্যও সুযোগ প্রদান করা হবে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন চুয়েটের শেখ কামাল আইটি বিজনেস ইনকিউবেটরের প্রকল্প পরিচালক সৈয়দ জাহুরুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের সম্পাদক প্রকৌশলী কাজী খায়রুল বাশার। ইউনিবেটর সম্পর্কে বিস্তারিত প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরামর্শক (স্টার্টআপ পলিসি ও ইনকিউবেশন স্ট্র্যাটেজি) আশিকুর রহমান রুপক এবং  সঞ্চালনা করেন আইইবির সহকারী সাধারণ সম্পাদক (একাডেমিক ও আন্তর্জাতিক) প্রকৌশলী মো. রনক আহসান। সূত্র: কম্পিউটার বিচিত্রা ।

Bangla News 24.com

ইউনিবেটর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ‘প্রাইড’ প্রকল্পের ঘোষণা দিলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

২০৪১ সালের প্রযুক্তি বিশ্বে নেতৃত্ব দিতে তিনটি উদ্যোগ বাস্তবায়নে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে সরকারের আইসিটি বিভাগ। এরমধ্যে ব্যবসায় উদ্যোগকে সহায়তায় প্রাইভেড ইন্ডাস্ট্রি ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট (প্রাইড) নামে নতুন একটি উদ্যোগ হাতে নেয়া হয়েছে। শিগগিরি এই প্রকল্পটি একনেক বৈঠকে উপস্থাপন করা হবে। একইসঙ্গে প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি করে সেন্টার ফর ফোরথ ইন্ডাস্ট্রি রেভ্যুলেশন ( সেন্টার ফর ফোর আই আর) গবেষণা ল্যাব তৈরি করা হবে। এছাড়াও ভবিষ্যতমুখী প্রযুক্তির জন্য দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে পদ্মা পাড়ে ৭০ একর এলকাজুড়ে শেখ হাসিনা ইনস্টিটিউট অব ফ্রন্টিয়ার টেকনলোজিস (শিফট) গড়ে তোলা হবে।

বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ এবং আইইবি এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত হলো “ইউনিবেটর” প্রোগ্রামের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তব্যে এই তথ্য জানান আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

শুক্রবার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) এর সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এবং আইইবি’র প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (সচিব) হোসনে আরা বেগম এনডিসি, ইউজিসি সদস্য অধ্যাপক ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন, আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মোল্লা মোহাম্মদ আবুল হোসেন, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ) এ এন এম সফিকুল ইসলাম (যুগ্ম সচিব) প্রমুখ।।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আইসটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘শিক্ষক, শিক্ষার্থী, গ্র্যাজুয়েট কিংবা গবেষকদের থিসিস, ফাইনাল ইয়ার প্রজেক্ট কিংবা এসাইনমেন্টগুলোর সকল উদ্ভাবনী চিন্তা এবং সেগুলোকে পন্য বা সেবায় রুপান্তরের মাধ্যমে বিজনেস ভেঞ্চারে পরিনত করার জন্যেই ইউনিভার্সিটি ইনকিউবেটর তথা সংক্ষেপে “ইউনিবেটর” প্রোগ্রামের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, গ্র্যাজুয়েট কিংবা গবেষকদের গবেষণায় যেসব ডিজরাপটিভ প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনী আইডিয়া থাকে সেগুলো বাস্তব জীবনে পণ্য কিংবা সেবায় রুপান্তর করে সেটার ভিত্তিতে নতুন নতুন বিজনেস ভেঞ্চার তৈরির পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে মেন্টর তৈরির জন্য ইউনিবেটর প্রোগ্রামের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের আওতাধীন শেখ কামাল আইটি ইনকিউবেশন সেন্টার চুয়েট প্রকল্প এবং ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) এর ঢাকা সেন্টার।

ইউনিবেটর প্রোগ্রামের প্রথম ধাপে ২০টি বাছাইকৃত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মেন্টর হিসেবে গড়ে তোলার জন্য চারদিন ব্যাপী বাংলাদেশের প্রথম মেন্টর ডেভেলপমেন্ট ক্যাম্প আয়োজন, দেশ সেরা ১০টি একাডেমিক প্রজেক্ট বাছাই এর প্রতিযোগিতা এবং সেই ১০টি প্রজেক্টকে মাস ব্যাপী ইনকিউবেশনের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক মানের স্টার্টআপ হিসেবে বাজারে আনার পরিকল্পনা করা হয়েছে। সেরা ১০টি প্রকল্পকে বিনামূল্যে এক মাসের ইনকিউবেশন, স্টার্টআপ লঞ্চিং প্রোগ্রামসহ যাবতীয় ট্রেনিং এবং মেন্টরিং সুবিধা দেয়া হবে এই প্ল্যাটফর্ম থেকে। এছাড়াও দেশব্যাপী স্থাপিত শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার ও সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের মত স্থাপনাগুলোতে এক বছরের জন্য বিজনেস স্পেস প্রদান করার পাশাপাশি ইনোভেশন ডিজাইন এন্ড অন্ট্রাপ্রেনরশিপ একাডেমি (আইডিয়া) প্রকল্প এবং স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেড হতে ১০ লক্ষ টাকার অনুদানসহ ইক্যুইটি ফান্ডিং এর জন্যও সুযোগ প্রদান করা হবে।

অনুষ্ঠানে আগত এবং ভার্চুয়ালি যুক্ত সকলকে স্বাগত জানান চুয়েটের শেখ কামাল আইটি বিজনেস ইনকিউবেটরের প্রকল্প পরিচালক এবং বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরিচালক (টেকনিক্যাল) সৈয়দ জাহুরুল ইসলাম (যুগ্ম সচিব), উদ্বোধনী বক্তব্য প্রদান করেন আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের সম্মানী সম্পাদক প্রকৌশলী কাজী খায়রুল বাশার। ইউনিবেটর সম্পর্কে বিস্তারিত প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরামর্শক (স্টার্টআপ পলিসি ও ইনকিউবেশন স্ট্র্যাটেজি) আশিকুর রহমান রুপক এবং সঞ্চালনা করেন আইইবি’র সহকারী সাধারণ সম্পাদক (একাডেমিক ও আন্তর্জাতিক) প্রকৌশলী মো. রনক আহসান। এছাড়াও সারাদেশ হতে বাছাইকৃত ২০টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হতে মেন্টর হিসেবে নির্বাচিত ২০জন শিক্ষক ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে যুক্ত ছিলেন। সূত্র:দিগি বাংলা ।

Jugantor

উদ্ভাবনী চিন্তাগুলোকে বাস্তবে রূপদান করবে ইউনিবেটর: পলক

শিক্ষক, শিক্ষার্থী, গ্র্যাজুয়েট, গবেষকদের থিসিস, ফাইনাল ইয়ার প্রজেক্ট কিংবা অ্যাসাইনমেন্টগুলোর সব উদ্ভাবনী চিন্তা, ধারণা এবং সম্ভাবনাকে পণ্য বা সেবায় রূপান্তরের মাধ্যমে বিজনেস ভেঞ্চারে পরিণত করতেই ইউনিভার্সিটি ইনকিউবেটর সংক্ষেপে ‘ইউনিবেটর’ প্রোগ্রামের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

শুক্রবার সকাল ১০টায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) সদর দপ্তরে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ এবং আইইবির যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত ইউনিবেটর প্রোগ্রামের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অনলাইনে সংযুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর তথ্যমতে, প্রতি বছর প্রায় ১০ লাখ গ্র্যাজুয়েট বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও বিশ্ববিদ্যালয় হতে পাস করে বের হয়। নিয়মানুসারে তাদের প্রত্যেকেই কোনো না কোনো থিসিস, রিসার্চ কিংবা ফাইনাল ইয়ার প্রজেক্ট জমা দিয়ে গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করতে হয়। শিক্ষক, শিক্ষার্থী, গ্র্যাজুয়েট কিংবা গবেষকদের এ রিপোর্টগুলোতে বেশকিছু প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনী আইডিয়া থাকে। সেগুলো বাস্তব জীবনে পণ্য কিংবা সেবায় রূপান্তর করে সেটার ভিত্তিতে নতুন নতুন বিজনেস ভেঞ্চার তৈরির পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে মেন্টর তৈরির জন্য ইউনিবেটর প্রোগ্রামের উদ্যোগ গ্রহণ করে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের আওতাধীন শেখ কামাল আইটি ইনকিউবেশন সেন্টার চুয়েট প্রকল্প এবং আইইবির ঢাকা সেন্টার।

ইউনিবেটর প্রোগ্রামের প্রথম ধাপে ২০টি বাছাইকৃত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মেন্টর হিসেবে গড়ে তোলার জন্য চার দিনব্যাপী ডেভেলপমেন্ট ক্যাম্প আয়োজন, দেশসেরা ১০টি একাডেমিক প্রজেক্ট বাছাইয়ের প্রতিযোগিতা এবং সেই ১০টি প্রজেক্টকে মাসব্যাপী ইনকিউবেশনের মাধ্যমে আন্তর্জাতিকমানের স্টার্টআপ হিসেবে বাজারে আনার পরিকল্পনা করা হয়েছে।

সেরা ১০টি প্রকল্পকে বিনামূল্যে এক মাসের ইনকিউবেশন, স্টার্টআপ লঞ্চিং প্রোগ্রামসহ যাবতীয় ট্রেনিং এবং মেন্টরিং সুবিধা দেয়া হবে এ প্ল্যাটফর্ম থেকে। এছাড়াও শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং ও বিজনেস ইনকিউবেটর এবং সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের মতো স্থাপনাগুলোতে ১ বছরের জন্য বিজনেস স্পেস প্রদানের পাশাপাশি ইনোভেশন ডিজাইন অ্যান্ড এন্টারপ্রেনরশিপ একাডেমি (আইডিয়া) প্রকল্প এবং স্টার্টআপ বাংলাদেশ হতে ১০ লাখ টাকার অনুদানসহ ইক্যুইটি ফান্ডিংয়েরও সুযোগ দেয়া হবে।

ইউনিবেটরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম পিএএর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এবং আইইবির প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী আবদুস সবুর, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম এনডিসি (সচিব), ইউজিসি সদস্য অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ হোসেন, আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মোল্লা মোহাম্মদ আবুল হোসেন, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ) এএনএম সফিকুল ইসলাম (যুগ্মসচিব) প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সবাইকে স্বাগত জানান চুয়েটের শেখ কামাল আইটি বিজনেস ইনকিউবেটরের প্রকল্প পরিচালক এবং বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরিচালক (টেকনিক্যাল) সৈয়দ জাহুরুল ইসলাম। উদ্বোধনী বক্তব্য দেন আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের সম্পাদক প্রকৌশলী কাজী খায়রুল বাশার। ইউনিবেটর সম্পর্কে বিস্তারিত প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরামর্শক (স্টার্টআপ পলিসি ও ইনকিউবেশন স্ট্র্যাটেজি) আশিকুর রহমান রুপক এবং  সঞ্চালনা করেন আইইবির সহকারী সাধারণ সম্পাদক (একাডেমিক ও আন্তর্জাতিক) প্রকৌশলী রনক আহসান। এছাড়াও সারা দেশ হতে বাছাইকৃত ২০টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হতে মেন্টর হিসেবে নির্বাচিত ২০ জন শিক্ষক ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন। সূত্র:যুগান্তর ।